Siddiqua Kabir Passes Away


Siddiqua Kabir

সিদ্দিকা কবির মারা গেছেন ।। Siddiqua Kabir Passes Away


বাংলাদেশে টেলিভিশনে রান্নার অনুষ্ঠানের পথিকৃৎ বলা হয় যাকে, সেই জনপ্রিয় টেলিভিশন উপস্থাপক এবং পুষ্টিবিদ সিদ্দিকা কবির মারা গেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানানো হয়, মঙ্গলবার তিনি ঢাকার একটি হাসপাতালে মারা যান। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর৻ গত কিছুদিন ধরে তিনি বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন।

সিদ্দিকা কবির দীর্ঘদিন ঢাকার গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজে অধ্যাপনা করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ওকলাহোমা স্টেট ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞানে উচ্চশিক্ষা নেন।

সিদ্দিকা কবিরের লেখা ‘রান্না-খাদ্য-পুষ্টি‘ বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি বিক্রিত রান্নার বইগুলোর একটি।
বই দেখে রান্না
রান্না করতে পছন্দ করেন অথচ সিদ্দিকা কবীরের বই নেড়ে চেড়ে দেখেননি এমন মানুষ বোধ হয় খুব একটা পাওয়া যাবে না বাংলাদেশে।

তাঁর বই বাংলাদেশের রসনাবিলাসী মানুষের রান্নাঘরে অপরিহার্য হয়ে উঠে সেই সত্তরের দশক থেকে।

সেই সময় সিদ্দিকা কবিরের বই কিনেছিলেন ঢাকার বাসিন্দা নুরুন্নাহার বেবি । এখনো মাঝে মধ্যে নেড়ে চেড়ে দেখেন তার সেই বই৻ অনেক রান্নায় প্রথম হাতে খড়ি সিদ্দিকা কবিরের বই দিয়েই। কাউকে ধার দিতেও অস্বস্তি বোধ করেন পাছে কেউ নষ্ট করে ফেলেন সেই ভয়।
বাংলাদেশে রান্নার বই লেখার প্রচলন এবং তা জনপ্রিয় করে তোলার প্রধান কৃতিত্ব সিদ্দিকা কবীরের এমন কথা বলেন অনেকে। আজকের দিনেও গৃহবধু অথবা বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত নারীরা তার বইকে জায়গা দিয়েছেন ঘরের বুক শেল্ফে।
কেন তাঁর বইয়ের এই কদর? ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা রোজারিও রত্না তালুকদার বলছিলেন প্রথম বিয়ে-বার্ষিকীতে বাবার কাছ থেকে উপহার হিসেবে পেয়েছিলেন সিদ্দিকা কবীরের ‘রান্না-খাদ্য-পুষ্টি‘ বইটি।
রোজারিও রত্না তালুকদার বললেন এই বইয়ে দেশ বিদেশের অনেক রান্না একসাথে পাওয়া যায় তাই প্রায়ই এই বই থেকে রেসিপি নিয়ে পরিবারের জন্য রান্না করেন।
শুধু মহিলাদের কাছেই নয়, ভোজন-রসিক পুরুষরাও তাঁর বই ব্যবহারে পিছিয়ে নেই।
তাদের একজন জাকির হোসোইন জানালেন তার ৬ বছরের মেয়ে প্রায়ই সিদ্দিকা কবীরের বই নিয়ে আসেন আর বাবাকে তার পছন্দের কোন মজার রান্না করে দেবার অনুরোধ করেন। বাবা-মেয়ে এক সাথে রান্না করে ঘরেই সেই খাবার উপভোগ করেন৻
শুধু বই লেখাতেই সীমাবদ্ধ ছিলেন না সিদ্দিকা কবীর। ১৯৬৫ সালে তখনকার পাকিস্তান টেলিভিশনে ‘ঘরে বাইরে’ নামে একটি রান্নার অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তার টিভি উপস্থাপনার শুরু।
‘‘সিদ্দিকা কবীর’স রেসিপি‘‘ নামে তাঁর একটি সাম্প্রতিক টেলিভিশন শো ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে। সেই অনুষ্ঠানে তার সাথে উপস্থাপনার কাজ করতেন শারমিন লাকি।
শারমিন লাকি বললেন, “ছোটবেলা থেকেই মা খালাদের কাছে এই বই দেখেছি। তাঁর বইয়ের মূল বিষয় হলো যে কোন রান্না খুব সহজ করে বোঝানো থাকে। রান্নার স্বাদ ভাল হতে বাধ্য আর তাতে উৎসাহ বেড়ে যেত অনেক।“
বাংলাদেশের বুক শেল্ফ পেরিয়ে সিদ্দিকা কবীর পৌছে গেছেন সুদূর প্রবাসেও। বিদেশে পড়তে যাবার আগে রান্নায় অপটু ছাত্র-ছাত্রীরা স্যুটকেসে ভরে নিয়েছেন তাঁর বই।

খবরটি বিবিসি বাঙলা থেকে সংগৃহীত
Siddika Kabir Passes Away

No comments:

Post a Comment

Post a Comment